Text size A A A
Color C C C C
পাতা

কী সেবা কীভাবে পাবেন

ক্রমিক নং

কাজ/সেবার নাম

উপস্থাপন/নিষ্পত্তির সময়কাল

মমত্মব্য

০১।

ক্ষুদ্রসেচ উনড়বয়নের লক্ষ্যে পানি সম্পদ উনড়বয়নে প্রয়োজনীয় নীতিমালা / পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্বতায়নে সরকারকে পরামর্শ প্রদান।

মন্ত্রনালয়ের নির্দেশনা অনুসারে দ্রুততার সাথে প্রয়োজনীয় পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্বতায়ন কাজ সম্পাদন।

ক্ষুদ্রসেচ নীতিমালা

প্রণয়নে সরকারকে

সহযোগিতা প্রদান করা হয়।

০২।

ক্ষুদ্রসেচ উনড়বয়নের লক্ষ্যে ভূ-গর্ভস্থ ও ভূ-পরিস্থ পানি সম্পদ উনড়বয়নের নিমিত্ত সেচ অবকাঠামো নির্মাণ, ভূ-গর্ভস্থ ও ভূ-পরিস্থ সেচ নালা নির্মাণের মাধ্যমে সরেজমিনে দক্ষ সেচ ও পানি ব্যবস্থাপনা (ঙঋডগ) কর্মসূচি বাসত্মবায়ন

প্রকল্পের মাধ্যমে পানি সম্পদ যথাযথ উনড়বয়ন ও ব্যবহারের জন্য বিভিনড়ব ধরনের সেচ অবকাঠামো নির্মাণ এবং দক্ষ সেচ ব্যবস্থার জন্য ভূ-গর্ভস্থ ও

ভূ-পরিস্থ সেচনালা নির্মাণ।

প্রকল্প গ্রহণের মাধ্যমে

সম্পাদন করা হয়।

০৩।

দুর্গম পাহাড়ী, চর ও উপকূলীয় এলাকাসহ বিশেষ সেচ ব্যবস্থা প্রয়োগসহ সমগ্র দেশে সেচ এলাকা বৃদ্ধির জন্য স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘ মেয়াদি প্রকল্প প্রণয়ন, বাস্তবায়ন, মূল্যায়ণ ও ভবিষ্যৎ

কর্মপন্থা নির্ধারণ।

সেচ এলাকা বৃদ্ধির জন্য পাহাড়ি, চর ও

উপকূলীয় এলাকায় প্রকল্প প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করন এবং প্রাপ্ত ফলাফলের ভিত্তিতে ভবিষ্যত কর্মপন্থা নির্ধারণ।

প্রকল্প গ্রহণের মাধ্যমে

সম্পাদন করা হয়

০৪।

ছোট নদী, খাল, নালা ইত্যাদি সংস্কার, খনন/পুন: খনন এবং সেচ অবকাঠামো নির্মাণ করে পানির প্রাপ্যতা বৃদ্ধিসহ শক্তিচালিত ও ভাসমান পাম্প ব্যবহারের মাধ্যমে বোরো মৌসুমে ভূ-পরিস্থ পানির

সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিতকরণ।

ভূ-পরিস্থ পানি উনড়বয়নে বীরংঃরহম ছোট নদী, খাল ও বিল ইত্যাদি পুনঃখননসহ সেচ অবকাঠামো নির্মাণের মাধ্যমে পানি সংরক্ষণ এবং এ ধরনের প্রকল্প প্রণয়ন ও বাসাত বায়নের মাধ্যমে কার্য সম্পাদন।

প্রকল্প গ্রহনের মাধ্যমে

সম্পাদন করা হয়

০৫।

আধুনিক লাগসই কৃষি ও সেচ যন্ত্রপাতি সরবরাহ, স্থাপন, ব্যবহার, সেচ ব্যবস্থাপনা উনড়বয়নে সেচ প্রকৌশল প্রযুক্তির প্রয়োগ, সেচ সম্প্রসারণ, সেচ দক্ষতা বৃদ্ধি ও ফলন পার্থক্য (ণরবষফ এধঢ়)

কমানোর উপর কৃষক প্রশিক্ষণ।

স্থানীয় এলাকার উপযোগী লাকসই কৃষি ও

সেচযন্ত্রপাতি সরবরাহ, স্থাপন, ব্যবহার, সেচ ব্যবস্থাপনা উনড়বয়ন, সেচ সম্প্রসারণ ও সেচ দক্ষতা বৃদ্ধিতে ভূ-গর্ভস্থ (বারিড পাইপ) ও ভূ-পরিস্থ সেচনালা নির্মাণ। উল্লিখিত কার্যজম বাস্বতায়ন ও ফলন পার্থক্য কমানোর জন্য কৃষক প্রশিক্ষণ কার্যজম গ্রহণ ও সম্পাদন।

প্রকল্প গ্রহণের মাধ্যমে

সম্পাদন করা হয়

০৬।

সেচযন্ত্র, সেচ এলাকাসহ ভূ-গর্ভস্থ/ভূ-পরিস্থ পানি সম্পদ জরীপ, আধুনিক উনড়বত পদ্ধতিতে পানির সরত পরিবীক্ষণ, ৬ টি আঞ্চলিক ও ২৩০ টি মিনি ল্যাবের মাধ্যমে পানির গুণাগুণ পরীক্ষা করে বিভিনড়ব প্রকাশনার মাধ্যমে তথ্য সেবা প্রদান।

পানির গুণাগুণ জানার জন্য নিয়মিত পানির নমুনা সংগ্রহ এবং পরীক্ষা করা, পানির সরত নিয়মিত পরিবীক্ষণ এবং বিভিনড়ব প্রকাশনার মাধ্যমে তথ্য সেবা প্রদান।

 

০৭।

আর্সেনিকসহ অন্যান্য উপাদান যা সেচজনিত পরিবেশ দূষণ সমস্যার কারণ তা অনুসন্ধান ও সমাধানের দিক নির্দেশণা প্রদান।

সেচের পানিতে আর্সেনিক সহ অন্যান্য

উপাদানের মাত্রা নিরূপণ এবং তা প্রতিবেদন আকারে প্রকাশ করা ।

 

০৮।

খরা, দুর্যোগ, ঘুর্ণিঝড়, জলোচ্ছাস ও সিডরসহ বিভিনড়ব আপৎকালীন সময়ে জরুরী ভিত্তিতে সেচ ও সেচ সংজান্ত কারিগরি সেবা প্রদান;

প্রাকৃতিক দুর্য়োগের সময় মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে সংশ্লিষ্ট এলাকায় দ্রুত কারিগরি সেবা প্রদান।

এলাকার চাহিদা

অনুযায়ী বিভিনড়ব

কার্যজম বাস্বতায়ন

করা হয়।

০৯।

অকেজো / অচল গভীর নলকূপ পুনর্বাসন, নতুন নলকূপ স্থাপন এবং ঝঁুকিপূর্ণ এলাকায় ফোর্স মোড নলকূপ স্থাপন করে ক্ষেত্রায়নের মাধ্যমে সেচ সেবা প্রদান ও সেচ এলাকা সম্প্রসারণ করণ।

সেচ সুবিধা সম্প্রসারণ ও কৃষদের উত্তম সেবা প্রদানের জন্য অঞ্চল ভিত্তিক বিভিনড়ব ধরনের নুতন সেচ যন্ত্র স্থাপন এবং পুরাতন সেচযন্ত্র পুনর্বাসন কাজ সম্পাদন ও ক্ষেত্রায়ন।

প্রকল্প গ্রহনের মাধ্যমে

সম্পাদন করা হয়

১০।

গ্রামীন কৃষি ও আর্থ সামাজিক উনড়বয়নের লক্ষ্যে সরকারের বিভিনড়ব বিভাগ/ সংস্থা ও এনজিও এর সাথে যৌথভাবে /এককভাবে সমন্বিত ও আঞ্চলিক কৃষি উনড়বয়ন প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্বতায়ন।

গ্রামীন কৃষক ও আর্থ সামাজিক উনড়বয়নের লক্ষ্যে সরকারের বিভিনড়ব বিভাগ/ সংস্থার সাথে যৌথভাবে/ এককভাবে সমন্বিত ও আঞ্চলিক কৃষি উনড়বয়ন প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়ন।

মন্ত্রণালয়ের পরামর্শে

বিভিনড়ব সংস্থার সাথে

কৃষি উনড়বয়নে যৌথ

প্রকল্প গ্রহন করা হয়।

 

    

১১।

নির্মাণ বিভাগের মাধ্যমে সবজি, ফলমূল ও বীজ সংরক্ষণে আধুনিক হিমাগার নির্মাণ ও রক্ষণাবেক্ষণসহ বাংলাদেশ কৃষি উনড়বয়ন কর্পোরেশনের আওতায় গৃহীত সকল পূর্ত কাজের ডিজাইন, নির্মাণ ও মেরামতকরণ এবং সেচ বিভাগের আওতায় গৃহীত প্রকল্পসমূহের সেচ অবকাঠামোর ডিজাইন ও এস্টিমেট নির্মাণ বিভাগের মাধ্যমে সম্পাদন।

নির্মাণ বিভাগের মাধ্যমে সবজী, ফলমূল ও বীজ সংরক্ষণে আধুনিক হিমাগার নির্মাণ ও রক্ষণাবেক্ষণ এবং বিএডিসি‘র পূর্ত কাজের ডিজাইন, নক্সা, এষ্টিমেট ইত্যাদি প্রণয়ন ও বাস্বতায়ন।

বিএডিসি বীজ উইং এর

বীজ গুদাম, হিমাগার,

সীড প্রসেসিং সেন্টার ও

সংস্থার বিভিনড়ব

পূর্তকাজের নির্মাণের

ডিজাইন, এষ্টিমেট এবং

সুপারভিশন করা হয়।

১২।

লবন পানির অনুপ্রবেশ সম্পর্কিত তথ্যসংগ্রহ, বিশেলষণ, পূর্বাভাস প্রদান ও প্রতিরোধে পরামর্শ প্রদান ।

লবন পানির অনুপ্রবেশ সম্পর্কিত বিভিনড়ব তথ্য সংগ্রহের ব্যবস্থা এবং এতদ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ ।

কর্মসূচির মাধ্যমে লবন

পানির অনুপ্রবেশ

সম্পর্কিত তথ্য সংগ্রহ

করা হচ্ছে।

১৩।

পাহাড়ী ছড়া/ছোট নদীতে রাবার ড্যাম স্থাপনের মাধ্যমে সেচ সুবিধা প্রদান।

ছোট ছোট প্রবাহমান পাহাড়ী ছড়া/ নদীর পানি ধরে সেচ কার্য সম্পাদনের জন্য রাবার ড্যাম নির্মাণের ব্যবস্থা।

প্রকল্প গ্রহণের মাধ্যমে

সম্পাদন করা হয়।

১৪।

প্যারামিটার ভিত্তিক জোনিং ম্যাপ প্রস্ত্তত ও আপডেট করণ।

অঞ্চল ভিত্তিক স্থিতিশীল পানির সরত ম্যাপের মাধ্যমে জানার জন্য জোনিং ম্যাপ পঁাচ বছর অমরত আপডেটকরণ।

সরেজমিন হতে

সংগৃহিত প্রাপ্ত ডাটার

ভিত্তিতে প্রস্ত্তত করণ।

১৫।

রিনিউএবল এনার্জি (সোলার প্যানেল) চালিত সেচ যন্ত্র সংগ্রহ/সরবরাহ ও ক্ষেত্রায়ন।

রিনিউএবল এনাজি (সোলার প্যানেল) সেচ কার্যে ব্যবহারের জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ।

পরীক্ষামূলক পর্যায়ে

রয়েছে।

১৬।

ভূ-গর্ভস্থ স্থিতিশীল পানির সরত অপরিবর্তিত রাখার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ।

ভূ-গর্ভস্থ পানির অধ্যাদেশ ১৯৮৭ যথাযথভাবে মাঠে প্রয়োগ করে স্থিতিশীল পানির সরত অপরিবর্তিত রেখে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করণ।

প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা

গ্রহণের জন্য প্রচেষ্টা

নেয়া হচ্ছে।

১৭।

খামার হতে উৎপাদিত শস্য পরিবহন এবং জমি চাষাবাদের জন্য ভ্যান, গরুরগাড়ী, ট্রাক্টর, পাওয়ার টিলার ইত্যাদি চলাচলের জন্য ক্ষুদ্র আকারের গ্রামীণ সংযোগ রাসাত নির্মাণ।

খামারে যাতায়াতের জন্য ক্ষুদ্র আকারের গ্রামীণ সংযোগ সড়ক নির্মাণ।

প্রকল্প গ্রহণের মাধ্যমে

সেবা প্রদান করা ।

১৮।

কৃষি খামার যান্ত্রিকীকরণ ব্যবস্থার উনড়বয়নে সহায়তাকরণ।

কৃষি যান্ত্রিকীকরণে কৃষকদের উদ্বুদ্ধকরণ ও সহায়ক কার্যজম গ্রহণ।

কৃষকদের চাহিদা

অনুসারে বাস্বতায়নের

ব্যবস্থা নেয়া হচে